অনলাইনে ক্যারিয়ার গড়তে চান? তাহলে লেখাটা আপনার জন্য ।

লেখাপড়া করার পরে আমরা সবাই ভাল জায়গায় ক্যারিয়ার গড়তে  চাই। ভাল আয় করতে চাই।

এই জন্য অনলাইনে এসই আয় করার জন্য । অনলাইনে ক্যারিয়ার গড়ার জন্য পথ হল দুটি। চাকরি এবং বেবসা।

বাইরের চাকরির চেয়ে অনলাইনে চাকরির ধরনটা টা আলাদা। অনলাইনে চাকরি করতে হলে আপনাকে যে কোন একটি কাজ ভাল করে শিখতে হবে। তার পর কাজ পাওয়ার জন্য অনলাইন ফ্রীলেন্স মার্কেট প্লেস গুলোতে যেতে হবে। কাজের জন্য আবেদন করতে হবে। তারপর অপেক্ষা করতে হবে। কাজ টি দেওয়ার জন্য আপনার ইন্তারভিউ নিতে আপনাকে ডাকবে। কখন ডাকবে সেটা বলা যাবে না। রাতেও ডাকতে পারে। আবার দিনেও ডাকতে পারে। তার মানে এই সেক্টরে কাজ করতে হলে।অনলাইনে সারাক্ষণ থাকতে হবে। তাহলে ভাল কিছু করার স্মবাবনা আছে।

এখন আসি অনলাইন বিজনেস। আপনি ইচ্ছা করলে যে কোন সময় কাজ করতে পারেন। আপনার যখন সময় হবে। তখনি কাজ করতে পারবেন। আপনি যদি দিনের বেলায় বাইরে চাকরি করেন। করতে পারবেন। স্নগ্ধার পর থেকে আপনি অনলাইনে কাজ করতে পারবেন।

অনলাইনে বেবসা করতে হলে আপনাকে একটি ব্লগ বা ওয়েবসাইট খুলতে হবে। ব্লগ থেকে আপনি ভিবিন্ন উপায়ে আয় করতে পারবেন। ব্লগ থেকে আয় করার জনপ্রিয় মাধ্যম হল- বিজ্ঞাপন দেখিয়েএবং কোম্পানির পণ্য সেল করে। এই জন্য আপনাকে কন্টেন্ট লিখা শিখতে হবে।

আর অনলাইন থেকে আয় করার নির্ভর যোগ্য উপায় হল নিজের ওয়েবসাইট থেকে আয়। ব্লগ বা ওয়েবসাইট থেকে ভিবিন্ন ভাবে আয় করতে পারবেন। কোন সমস্যা নাই।

আপনি চাকরির পাশাপাশি করতে পারবেন। আমিও তাই নিয়েছি। অনেক কেই দেখেছি অফিসের কাজও করতেছে। আবার নিজের ওয়েবসাইটের জন্য কন্টেন্ট তৈরি করতেছে। তাদের দুদিক থেকে আয় আসতেছে।

আর যদি অনলাইনে চাকরির কথা বলি। তাহলে আপানকে অনলাইনে ২৪ ঘণ্টাই থাকতে হবে। এর পর freelance marketplace গুলোর নিয়ম যদি একটু ভুল হয়। তাহলে আপনাকে মার্কেট থেকে সরিয়ে দিবে। তাহলে আপনি রিস্কের মধ্যে রয়ে গেলেন। আর ভাল করে কাজ করতে না পারেন। বায়ারের দেওয়া খারাপ রিভিয়ের কারণে আপনি কাজ কম পাবেন। সম্পূর্ণ ভাবে আরেক জনের উপর নির্ভর করতে হবে। কিন্তু আপনি যখন নিজের ব্লগে কাজ করবেন। তখন শুধু ভাল কন্টেন্ট তৈরি করার চেষ্টা করবেন। এতেই যথেষ্ট। তবে আপনার লেখা পড়ার সাইটে ভিজিটর লাগবে। প্রথমে অনলাইন বা বাহিরে বিজ্ঞাপন দিবেন। তারপর সোশ্যাল মিডিয়া গুলোতে শেয়ার করবেন। ধীরে ধীরে আপনার সাইট ভিজিটর বাড়বে। যত ভিজিটর বাড়বে। তত পেজ ভিউ হবে। ততই আয় হবে। একদম সোজা কাজ।

তাহলে কি সিধান্ত নিলেন?

আগামি পর্বে অনলাইনে কোন চাকরি এবং বেবসা করবেন? সাথেই থাকুন।